ধর্ষণের বিচার না পেয়েই ট্রেনের নিচে বাবার-মেয়ের আত্মহত্যা

Tiger Logo T
নিজস্ব প্রতিবেদক

এলাকার এক বখাটে যুবক ধর্ষণ করেছিল তার শিশু কন্যাকে। এ ঘটনার বিচার চাইতে স্থানীয় মাতব্বরদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছেন বাবা। কিন্তু কোনো বিচার পাননি। বিচার না পেয়ে সেই শিশুকন্যা আয়েশাকে (৮) নিয়ে চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাপ দিলেন হযরত আলী (৪৫)। ঘটনাস্থলেই ঝরে গেল বাবা-মেয়ের প্রাণ। গাজীপুরের শ্রীপুর স্টেশনের দক্ষিণ পাশে শনিবার সকাল সোয়া ৯টায় মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জয়দেবপুর রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) দাদন মিয়া জানান, শ্রীপুর পশু হাসপাতাল সংলগ্ন রেললাইনে এলাকায় ময়মনসিংহগামী তিস্তা এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই দু’জন মারা যায়। ধারণা করা হচ্ছে শিশুকন্যাকে নিয়ে বাবা আত্মহত্যা করেছেন।
রেলওয়ে পুলিশ ও শ্রীপুর ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।
স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কর্ণপুর ছিটপাড়া এলাকায় সপরিবারে বসবাস করতেন হযরত আলী। স্থানীয় এক বখাটে তার শিশুকন্যা আয়েশা আক্তারকে ধর্ষণ করলে স্থানীয় মাতব্বরদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোনো বিচার পাননি তিনি। এই ক্ষোভ থেকেই মেয়েকে নিয়ে তিনি আত্মহননের পথ বেছে নেন।

আপনার মতামত



close