সাপ্তাহিক আমাদের খুলনা’র প্রকাশনা উৎসব

Tiger Logo T
নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক এবং জঙ্গিবাদ মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গিকার নিয়ে আত্মপ্রকাশ করলো সাপ্তাহিক আমাদের খুলনা। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩টায় খুলনা ক্লাবে এক জনাকীর্ণ পরিবেশে খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান-এর সম্পাদনায় আমাদের খুলনার প্রকাশনা উৎসব হয়।
আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে সাপ্তাহিক আমাদের খুলনার মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময়ে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর, খুলনা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান, দৈনিক পূর্বাঞ্চলের সম্পাদক বেগম ফেরদৌসী আলী, দৈনিক প্রবাহের সম্পাদক আশরাফুল হক, প্রবীণ সাংবাদিক এ্যাড. মনিরুল হুদা, দৈনিক খুলনাঞ্চলের সম্পাদক খবিরুজ্জামান, খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম হাবিব, দৈনিক অণির্বানের সম্পাদক অধ্যাক্ষ আলী আহমেদ, শেখ আবু হাসান, এস এম জাহিদ হোসেন, এ্যাড. সুলতানা রহমান শিল্পী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, সাপ্তাহিক আমাদের খুলনার যুগ্ম সম্পাদক আজমল আহমেদ তপন।
এ সময়ে বক্তরা বলেন, সংবাদপত্রকে পাঠক প্রিয় করতে হলে সাদাকে সাদা এবং কালোকে কালো বলতে হবে। সেজন্যে সাংবাদিককে লেখার পূর্ণ স্বাধীনতা দিতে হবে। এখানে যেমন উন্নয়নের কথা বলা হবে, তেমনি মানুষের সমস্যার কথাও তুলে ধরতে হবে। বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার মধ্যদিয়েই সাধারণ মানুষসহ সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা সম্ভব।
বক্তারা আরো বলেন, সুন্দর বনের নদীতে বিষ ঢেলে মাছ নিধনসহ পরিবেশের ক্ষতি করছে একশ্রেণির মানুষ। তাদের অপতৎপরতার কারনে সুন্দরবনের সুন্দরী গাছ সহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ মরে যাচ্ছে ; বিনষ্ট হচ্ছে জীব বৈচিত্র। এ সব নিয়ে কেউ বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করছেন না। অথচ বিদ্যুত কেন্দ্র নিয়ে যত নেতিবাচক সংবাদ আছে সেগুলি প্রকাশ করছেন। এটি তো বস্তুনিষ্ঠ সংবাদিকতা হতে পারে না। তাই কেবলমাত্র নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশ করে খুলনার উন্নয়নকে ব্যহত করবেন না। বক্তরা সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, দোষ-ত্রুটি থাকলে সেগুলি লিখবেন, কিন্তু অযথা মানুষের মান সম্মান এবং দেশের ক্ষতি করবেন না। আমাদের খুলনা পত্রিকা স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ, অসাম্প্রদায়িক এবং জঙ্গিবাদ মুক্ত বাংলাদেশের মুখপাত্র হিসেবে কাজ করবে বলে বক্তারা প্রত্যাশা করেন।
এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, খুলনা মহানগর জাসদের সভাপতি রফিকুল হক খোকন, রূপান্তরের নির্বাহী পরিচালক স্বপন গুহ, জেলা ন্যাপের সভাপতি এ্যাড. ফজলুর রহমান, জাসদ কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো. খালিদ হোসেন, খুলনা চেম্বারের সহ সভাপতি শরীফ আতিয়ার রহমান, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, দৈনিক দেশ সংযোগ সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, দৈনিক খুলনাঞ্চল প্রকাশক মিজানুর রহমান মিলটন, মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন সাধারণ সম্পাদক হাসান আহমেদ মোল্লা, খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার, এ্যাড. রজব আলী সরদার, কাউন্সিলর আলী আকবর টিপু, দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিনের সম্পাদক এস এম সাহিদ হোসেন, শরীফ হাফিজুর রহমান চন্দন, ওর্য়াকার্স পার্টির মফিদুল ইসলাম, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শরীফ ফজলুর রহমান, চেম্বারের পরিচালক মফিদুল ইসলাম টুটুল, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল,সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

আপনার মতামত



close