সাতক্ষীরায় বাস ও মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

মনিরুল ইসলাম মনি, সাতক্ষীরা

একটি মোটর সাইকেলকে বাঁচাতে যেয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে খাদে পড়ায় বাসের হেলপার নিহত হয়েছে। এ সময় মোটর সাইকেল চালকসহ ১০ জন বাসযাত্রী আহত হয়েছে।
শুক্রবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে সাতক্ষীরা- শ্যামনগর সড়কের দেবহাটার ডেল্টা ফিস নামকস্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের সখীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের নাম আজগার আলী। সে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার তেঁতুৃলিয়া গ্রামের আলাউদ্দিন গাজীর ছেলে।
আহতরা হলেন, সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার চাঁচাই গ্রামের আব্দুৃস সবুরের ছেলে রিয়াজুল ইসলাম (২১), একই উপজেলার পীরগাজন গ্রামের শাহাদাৎ হোসেনের স্ত্রী ফিরোজা বেগম(৫৫), বালিয়াডাঙা গ্রামের দাউদ আলীর ছেলে মোটর সাইকেল চালক হাজী নজরুল ইসলাম (৪০), নওয়াপাড়া গ্রামের বারী গাজীর ছেলে সিরাজুল ইসলাম (৪৫), বাজারগ্রামের শেখ সেলিমের মেয়ে করিমুন্নেছা (১৪), জেলার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর গ্রামের আমিনুদ্দিন গাজীর ছেলে ইউনুছ আলী (৫৫), দেবহাটা উপজেলার সখীপুর গ্রামের নওশের আলীর ছেলে ওমর আলী (৫৪)। অপর তিনজনের পরিচয় জানা যায়নি।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাতক্ষীরা থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহি বাস(সাতক্ষীরা-জ-১১-০০০৬) গতকাল সকাল সাড়ে সাতটার দিকে সাতক্ষীরা- শ্যামনগর সড়কের দেবহাটা উপজেলার ডেল্টা ফিস নামক স্থান পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুতগামি এক মোটর সাইকেল চালককে বাঁচানোর চেষ্টা করে। এতে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাম পাশের একটি সৃষ্টিফুল গাছের সঙ্গে ধাক্কা মেরে খাদে পড়ে যায়। ধাক্কা খেয়ে হেলপার আজগার আলী রাস্তায় পড়ে যেয়ে বাসের পিছনের চাকায় পিষ্ট হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। আহত হন মোটর সাইকেল চালকসহ নয়জন বাসযাত্রী। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ ঘটনায় স্থানীয়রা সকাল ৮টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত সাতক্ষীরা- শ্যামনগর সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। পরে পুলিশ এসে ঘাতক বাসটি আটক করে। তুলে নেওয়া হয় অবরোধ।
দেবহাটা থানার উপপরিদর্শক আব্দুস সামাদ দুর্ঘটনায় একজনের মৃত্যু ও ১০জন আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ স্বজনদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

আপনার মতামত



close