জঙ্গি অর্থায়ন: ‘ঝুঁকিমুক্ত’ বাংলাদেশ

টাইগার নিউজ

bangladesh-bank_1_127287মানিলন্ডারিং ও জঙ্গি অর্থায়নে ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকা থেকে বের হয়ে আসলো বাংলাদেশে। যুক্তরাষ্ট্রে এশিয়া প্যাসিফিক গ্রুপ অন মানি লন্ডারিংয়ের (এপিজি) বার্ষিক সম্মেলনে মূল্যায়ন রিপোর্টে এই তথ্য উঠে এসেছে। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এপিজির বার্ষিক সভায় বাংলাদেশকে নিয়ে তৃতীয় পর্বের চূড়ান্ত যে প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে, তাতে মুদ্রা পাচার ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অর্থায়ন প্রতিরোধে বাংলাদেশের ভূমিকাকে সন্তোষজনক হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।’

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সান দিয়াগো শহরে এপিজি বার্ষিক সভায় বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৪১টি দেশের মানি লন্ডারিং রেটিং দেওয়া হয়েছে। এতে বাংলাদেশের ঝুঁকিতে পড়ার যে আশঙ্কা ছিল, তা কেটে গেছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, ১১টি লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে তিনটিতে বাংলাদেশ উন্নতি করেছে। এজন্য রিজার্ভ চুরি ও গুলশান হামলায় ঘটনার পর ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন রিভিউ গ্রুপ (আইসিআরজে) প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত করার যে আশঙ্কা করা হয়েছিল, বাংলাদেশ তা থেকে পুরোপুরি মুক্ত হয়েছে।

উল্লেখ্য, ৫ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সান দিয়াগো শহরে এপিজি’র বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এতে বাংলাদেশ থেকে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

এই সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশে। কিন্তু গুলশান হামলার পর এপিজির বার্ষিক সভাটি ২ মাস পেছানো হয়। ঢাকার পরিবর্তে ভেন্যু করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে।

সর্বশেষ চলতি বছরের মে মাসের শুরুতে এপিজির ৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ঢাকায় এসেছিল। তখন অর্থ পাচার ও জঙ্গি অর্থায়ন প্রতিরোধসহ বিভিন্ন ইস্যুতে এপিজি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে টানা ১৬টি বৈঠক করে বিএফআইইউ।

জানা গেছে, জঙ্গি অর্থায়ন নিয়ন্ত্রণ, অর্থ পাচার প্রতিরোধ এবং যে কোনও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অর্থায়ন বন্ধে প্রতিবছর এপিজির বার্ষিক সভা করা হয়ে থাকে। এবারের সভায় ৪১টি সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধি, ৮টি দেশ এবং ২৮টি আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রায় ৪০০ প্রতিনিধি অংশ নেওয়ার কথা ছিল। এই সম্মেলন সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য বাংলাদেশের প্রস্তুতিও ছিল।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

আপনার মতামত



close