জবির আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

টাইগার নিউজ

jogonnath_125759হলের দাবিতে আন্দোলনরত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর দুই দফা হামলা করেছে ছাত্রলীগ। এতে ১৫ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। এরমধ্যে চারজনের অবস্থা গুরুতর।

রবিবার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল গেট ও ১০টার দিকে শাখারিবাজার মোড়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করা হয়।

আহতরা হলেন- রাহুল, রাকিব, অনিমেষ, জুনায়েদ, ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি মেহরাব আজাদ, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি আল আমিন, লেখাপড়া ডটকমের প্রতিনিধি মাসুম আকন্দ, হাসান, ওয়েসকুরুনি প্রমুখ। তাদেরকে ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া হামলায় তিনজন নারী শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এরা হলেন- চৈতি, ঝুমুর ও লাকি।

লেখাপড়া ডটকমের প্রতিনিধি মাসুম আকন্দ  জানান, ‘সাংবাদিক পরিচয় দেয়ার পরেও আমাকে মারধর করা হয়েছে। আমার মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়া হয়েছে। এখনো আমাকে মোবাইল ফোন ফেরত দেয়নি।’

শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে জানান, হল নির্মাণের দাবিতে পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে রবিবার সকাল থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছিলাম। এসময় ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম শরিফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক এসএম সিরাজুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়। এসময় সাধারণ সম্পাদক এসএম সিরাজুল ইসলাম শিক্ষার্থীদেরকে মারধর করে। ওই হামলার ভিডিও আছে বলে দাবি করেন শিক্ষার্থীরা। প্রথম দফার হামলার ভিডিওটি ফেসবুকে আপলোড করা হয়েছিল। কিন্তু দুই ঘণ্টা পরেই তা আবার সরিয়ে নেয়া হয়।

এসময় হামলায় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী আহত হয়। এরপর ছাত্রলীগের তাড়া খেয়ে শিক্ষার্থীরা শাখারিবাজার মোড়ে যেতেই ফের ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন শিক্ষার্থীরা। এসময় ১৫জন শিক্ষার্থী আহত হয়। আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন ছাত্রীও রয়েছে। হামলার একপর্যায়ে জবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম সিরাজুল ইসলাম রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ছাত্রী লাকির বুকে লাথি মারে। এতে তিনি মাটিতে পড়ে যান।

শিক্ষার্থীদের দাবি, গত শুক্রবার শহীদ মিনারে সিরাজুল ইসলাম বক্তব্য দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাকে বক্তব্য দিতে দেয়নি। ওইদিনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের নেতারা আজ সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করেছে।

তবে এ হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে ছাত্রলীগ। সংগঠনটির জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক এসএম সিরাজুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘আমরা শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করিনি। বরং শিক্ষার্থীরাই আমাদের শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচির ওপর হামলা করেছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘হল নির্মাণ আন্দোলনের সঙ্গে আমরা আছি। আমরা চাই শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসের মধ্যে আন্দোলন করুক। তারা রাস্তায় গিয়ে আন্দোলন করবে এটা আমরা চাই না। এতে মানুষের ভোগান্তি বাড়বে।’

তবে ছাত্রলীগের কোনো অবস্থান কর্মসূচি ছিল না বলে দাবি করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরতম শিক্ষার্থী রাহুল বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণভাবেই আন্দোলন করছি। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের মূল গেটে আমরা অবস্থান নেই সকাল ৯টায়। এর কিছুক্ষণ পরেই হামলা করে ছাত্রলীগ। এরপর যখন আমরা সাখারিবাজার মোড়ের দিকে যাচ্ছিলাম সেখানে পুলিশের ব্যারিকেট ছিল, সেখানে না যেতেই ছাত্রলী দ্বিতীয় দফায় আমাদের ওপর হামলা করছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর নুর মোহাম্মদের বলেন, ‘ ছাত্রদের আন্দোলনের সঙ্গে আমিও আছি। আন্দোলন নিয়ে ছাত্ররা নিজেরা যদি মারামারি করে তাহলে কী করার আছে। তবে লিখিক অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

আপনার মতামত



close