আমজাদ হত্যা মামলার রায় ৩০ আগস্ট

টাইগার নিউজ

law_124987ঢাকার সাভারের পাঁচগাছিয়ার আনোয়ার হোসেন আমজাদ (১৮) হত্যা মামলার রায় আগামী ৩০ আগস্ট ঘোষণা করবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল।

ঢাকার ৩ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক সাঈদ আহমেদ সোমবার মামলাটির যুক্তিতর্কের শুনানি শেষে রায় ঘোষণার এদিন ঠিক করেন।

একই সঙ্গে মামলাটির জামিনে থাকা তিন আসামি আশরাফ হোসেন বাপ্পি, মো. রুবেল এবং মো. বাবুলের জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

মামলাটি চলতি বছর ২৫ এপ্রিল ঢাকার ৩ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হওয়ার পর মাত্র তিন মাসের মধ্যে গত ৩ আগস্ট চার্জশিটের ১৭ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়। এরপর গত ১১ আগস্ট আসামিদের আত্মপক্ষ শুনানির পর ২১ ও ২২ আগস্ট যুক্তিতর্কের শুনানির পর রায় ঘোষণার এ দিন ঠিক করা হয়।

ওই ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি মাহবুবুর রহমান জানান, আমরা রাষ্ট্রপক্ষ সাক্ষ্য-প্রমানে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে পেরেছি বলে মনে করছি। তাই আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হবে বলে আমরা আশা করছি।

প্রসঙ্গত, ঢাকার সাভারের পাঁচগাছিয়ার ব্যবসায়ী মো. দেলোয়ার হোসেন ছোট ভাই আমজাদকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ২০১৩ সালের ২২ সেপ্টেম্বর প্রকাশ্য দিবালোকে বাসার সামনে মারধর করা হয়। পরবর্তী সময়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই বছর ২৬ সেপ্টেম্বর আমজাদ মৃত্যুবরণ করেন। নিহত হওয়ার রাতেই সাভার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন ভাই দেলোয়ার। মামলাটিতে ২০১৪ সালের ৩১ মে আদালতে আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে ডিবি পুলিশের এসআই মো. নজরুল ইসলাম। কিন্তু তদন্ত ত্রুটিপূর্ণ হওয়ায় বাদীর নারাজির ভিত্তিতে মামলাটি পরে সিআইপি পুলিশ তদন্ত করে ২০১৫ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি সিআইডি পুলিশের ইন্সপেক্টর বিষ্ণু ব্রত মল্লিক একই আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিট হওয়ার পর ২০১৫ সালের ২৭ আগস্ট ঢাকার সপ্তম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে আমজাদকে হত্যার অভিযোগে দণ্ডবিধির ৩০২ এবং বাদীসহ অপরদের আহত করার অভিযোগে ৩২৩ ধারায় চার্জগঠন করেন। পরবর্তী সময়ে মামলাটি আলোচিত এবং মর্মান্তিক হিসেবে দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য ঢাকার ৩ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচারের জন্য চলতি বছর ৪ ফেব্রুয়ারি গেজেট প্রকাশ করে সরকার। এরপর মামলাটির দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচার শুরু হয়।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

আপনার মতামত



close