রিজার্ভ চুরি জামিনে মুক্ত সেই মায়া সান্তোস দেগুইত

টাইগার নিউজ

maya_124409বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেপ্তার ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশনের (আরসিবিসি) মাকাতি শহরের জুপিটার স্ট্রিট শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক মায়া সান্তোস দেগুইতকে বৃহস্পতিবার সকালে জামিনে মুক্তি দিয়েছে আদালত। গতকাল বুধবার বিকাল নাগাদ গ্রেপ্তারের কয়েকঘণ্টা পরেই জামিনে মুক্তি পান বলেন জানিয়েছে স্থানীয় অনলাইন ইনকোয়ার।

আরও পড়ুনঃ- রিজার্ভ চুরি: সেই মায়া সান্তোস দেগুইত গ্রেপ্তার

রাজধানী ম্যানিলার একটি সুপারমার্কেট থেকে তাকে গতকাল বিকাল চারটা ৪৫মিনিটে গ্রেপ্তার করা হয়। রাত একটা ১৫মিনিটে ছয় হাজার পেসোর বিনিময়ে পাসায় মেট্রোপলিটন ট্রায়াল কোর্টের বিচারক রেমিবিডেল মনদিয়া মায়াকে জামিনে মুক্তি দেয়। জামিনে মুক্ত হলেও গতরাত মায়াকে কাটাতে হয়েছে মাকাতি পুলিশের প্রধান কার্যালয়ের বন্দি সেলে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের রির্জাভ চুরির ঘটনায় জড়িত হ্যাকারদের আইনের আওতায় আনতে বাংলাদেশ ব্যাংক, ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্ক এবং সোসাইটি ফর ওয়ার্ল্ডওয়াইড ইন্টারব্যাংক ফিন্যান্সিয়াল টেলিকমিউনিকেশন (সুইফট) একমত হওয়ার একদিন পরই তাকে গ্রেপ্তার করা হলো।

আরও পড়ুনঃ- ফেড, সুইফটের বিরুদ্ধে মামলা করছে না বাংলাদেশ ব্যাংক

গত ১৬ আগস্ট নিউইয়র্কে একটি বৈঠকে এই তিন প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তারা পারস্পরিক সহযোগিতার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরির পর মায়া দেগুইতের শাখার মাধ্যমেই সব অর্থ পাচার হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ ব্যাংকের চুরি হওয়া অর্থ পাচারের ঘটনায় ব্যাংকের নিয়ম-নীতিমালা ভঙ্গ ও ভুয়া নথি তৈরিতে জড়িত থাকার অভিযোগে একটি মামলা করেন আরসিবিসি সাবেক প্রেসিডেন্ট লরেঞ্জ তান। এই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে মায়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হলে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আরও পড়ুনঃ- রিজার্ভ চুরি: যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈঠক আজ

এর আগে এই অভিযোগে গত মার্চ মাসে আরসিবিসির মাকাতি শহরের জুপিটার স্ট্রিট শাখার ব্যবস্থাপক মায়া সান্তোস দেগুইতো ও সহকারী ব্যবস্থাপক অ্যাঞ্জেলা তোরেসকে বরখাস্ত করে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

সূত্র : ঢাকাটাইমস

আপনার মতামত



close