বেনাপোল ও শার্শার বাজারে ভারতের ‘বিষাক্ত’ সুন্দরী আমের ছড়াছড়ি

টাইগার নিউজ

62726_fবেনাপোল :: ভারত থেকে বেনাপোল ও শার্শার বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে আসছে ‘বিষাক্ত রাসায়নিক মেশানো’ সুন্দরী আম। বেনাপোলসহ শার্শা উপজেলার বিভিন্ন বাজারে এসব আম এখন বেশ পাওয়া যাচ্ছে। বাজার ঘুরে দেখা গেছে, হলুদের আভা এবং বোঁটার দিকে টকটকে লাল এই আম দেখলে মনে হবে হলুদ আলতার মিশ্রণ, যা সহজেই ক্রেতাকে আকৃষ্ট করে। বিক্রেতারা থরে থরে সাজিয়ে রেখেছেন আমগুলো। দিনের পর দিন দোকানে থেকে গা কুচকে গেলেও নষ্ট হচ্ছে না। বেনাপোল বাজারের ফল ব্যবসায়ী জাহিদ হোসেন বলেন, ভারতের ব্যবসায়ীরা বিষাক্ত রাসায়নিক ¯েপ্র করে ফলের রং উজ্জ্বল ও পাকানোর ব্যবস্থা করে। এরপর ফরমালিন দিয়ে আমগুলো সজীব রাখে। ভারতের মাদ্রাজ থেকে এ আম আসে বলে জানান তিনি। শার্শার ফল ব্যবসায়ী হজরত আলী বলেন, প্রতিবছর মৌসুম শুরুর আগেই বেনাপোলসহ গোটা যশোরের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ‘চোরাই পথে’ আসা ভারতীয় ‘সুন্দরী’ আমে বাজার ভরে যায়। এবারও একই অবস্থা। দামও চড়া। প্রতি কেজি আম বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ২০০ টাকায়। আম ক্রয় করতে আসা ফাহমিদা আক্তার বলেন, “দেশী আম বাজারে আসেনি, তাই বেশি দাম দিয়ে ভারতীয় আম কিনেছি। অন্যান্য ফলের মতো দোকান থেকে আম কিনলাম, এতে রাসায়নিক বিষ দেওয়া কিনা সেটা তো আমরা বুঝতে পারছি না। বেনাপোল পৌর স্যানেটারি ইন্সপেক্টর (পরিদর্শক) রাসিদা খাতুন বলেন, ভারত থেকে আসা আমসহ বিভিন্ন ফলের ক্যামিক্যাল পরীক্ষা করার ব্যবস্থা আমাদের নেই। তবে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। এ ব্যাপারে শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুস সালাম বলেন, স্থানীয়ভাবে ফলে রাসায়নিক ব্যবহারে উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় কাজটি বন্ধ রয়েছে। বেনাপোল বাজারের ফল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোলজার বলেন, বৈধভাবে আমদানি করলে লাভ তেমন হয় না। তাই অবৈধপথে এসব আম এখন বাংলাদেশে আসছে।

আপনার মতামত



close