স্পেন-ফ্রান্স ও বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত !

টাইগার নিউজ

রূপ চাঁদ দাশ রুপক :: কুয়াশামাখা সন্ধ্যায় সীমান্তে বসে আছি ।ফ্রান্স এবং স্পেনের সীমান্ত শহর ইরুন । এখানে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ফ্রান্সে থেকে এসে বিভিন্ন ধরনের বাজার করে নিজ ভূমি তে চলে যায়। সীমান্তে কোন বর্ডার গার্ড নেই।কোন গুলি হয় না।ফেলানীর মতো লাশ কাঁটা তারে ঝুলে থাকে না ।আমি প্রতিদিন সকালে হাঁটতে হাঁটতে ফ্রান্সের ভিতর থেকে ঘুরে আসি। মানুষের মধ্যে নেই কোন হিংসা, বিদ্বেষ,বণবাদ , নেই ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি । আজ এক বৃদ্ধকে পেলাম , যিনি আমাদের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় বাংলাদেশের গনহত্যার প্রতিবাদে মিছিল করে ছিলেন ।তিনি জানতে চান কেমন আছে বাংলাদেশ ? আমি বললাম এইতো বেশ ভালো আছে। (এখনও চলছে ধনী গরীব এর লড়াই, চলছে মৌলবাদ সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সংগ্রাম ।মুক্ত চিন্তার অনেকেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে আসছে ।)কিন্তু এই সব কথা বলতে পারলাম না । কারন আমার মাতৃভূমি ।আমার মা।মায়ের বদনাম কি আর বলা যায়?আমি বললাম তুমি যে দেশের বিরুদ্ধে গনহত্যার প্রতিবাদে মিছিলে যোগদান করেছিলে সেই পাকিস্তান থেকে আমাদের দেশ অনেক ভালো আছে ।
আমি দুই বছরের চেয়ে বেশি সময় এইজায়গা আছি কখনও স্পেন এবং ফ্রান্সের মধ্যে বডার নিয়ে কোন সমস্যা দেখি নাই ।তাহলে কেন বাংলাদেশ ও ভারতের সীমান্তে বিএসএফ কর্তৃক গুলি চালানোর ঘটনা ঘটে ? প্রতিনিয়ত গরীব নিরীহ মানুষের জীবন দিতে হয়। আরেকটা অংশ আছে যারা বাংলাদেশের রাজনীতি প্রবাসে করেন।এবং ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য নিজ মাতৃভূমি কে অন্য দেশের কাছে উলঙ্গ করে ফেলেন। নিজ মাতৃভূমি কে যারা অন্য কাছে ছোট্ট করে দেন।সেইসব রাজনীতিবিদের ধিক্কার জানাই । অবশেষে মিছিলে যাওয়া সেই বৃদ্ধকে হেলাল হাফিজ এর সেই কবিতা লাইন শুনালাম ” এখন যৌবন যার মিছিলে যাওয়ার শ্রেষ্ঠ সময় তার”। তোমার যৌবনে যে মিছিলে যোগদান করেছিলে সেই মিছিল ব্যর্থ হয়নি ।তুমি সফল মানুষ তোমাকে অভিবাদন ।সেই বৃদ্ধ খুশী হয়ে বাংলাদেশে বেড়াতে যাওয়ার কথা বললেন ।আমি শংকিত বাংলাদেশে যে ভাবে দুইজন বিদেশী কে হত্যা করা হয়েছে । তাদের খুনিদেরগ্রেফতার ও বিচার করা না গেলে আর কোন বিদেশী কি আমাদের দেশে যেতে সাহস পাবে?

লেখক Rup Chand Das Rupak – Spain Correspondent at ATN Bangla

লেখক আজ তার ফেসবুক পেজে এই লেখাটি উপস্থাপন করেছেন। তার লেখাটি টাইগার নিউজ পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল।

আপনার মতামত



close